ভিডিও

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

কয়লা পাচারকাণ্ডে ইসিএলের প্রাক্তন ও বর্তমান জিএম সহ ৮ জনের জামিন নাকচ সিবিআই আদালতের

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

লিলটু বাউরি, আসানসোল

কয়লা পাচারকাণ্ডে মামলায় ধৃত ইসিএলের প্রাক্তন ও বর্তমান জিএম বা জেনারেল ম্যানেজার সহ আটজনের সোমবার জামিন নাকচ হলো আসানসোল সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে। দু’পক্ষের আইনজীবীর সওয়াল-জবাব শেষে বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী তাদের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। আগামী ১ আগষ্ট এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বলে বিচারক নির্দেশ দিয়েছেন। এদিন সিবিআইয়ের তরফে আইনজীবী রাকেশ কুমার এই আটজনকে নতুন করে আর হেফাজতে নেওয়ার জন্য আদালতে কোন আবেদন করেননি। তবে তিনি ধৃতদের জামিন দেওয়ার আবেদনের বিরোধিতা করেন। এদিন সিবিআইয়ের তরফে জেল হেফাজতে থাকার সময় মামলার তদন্তের জন্য ধৃতদের জেরা করার আবেদন করা হয়েছিলো। বিচারক সেই আবেদন মঞ্জুর করেছেন।

সিবিআই কয়লা পাচারের এই মামলায় গত ১৩ জুলাই বুধবার যে সাতজনকে গ্রেফতার করেছিল তারা হলেন ইসিএলের প্রাক্তন জেনারেল ম্যানেজার অভিজিৎ মল্লিক, সুশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, তন্ময় দাস, বর্তমান জেনারেল ম্যানেজার এসসি মৈত্র এবং মুকেশ কুমার। এছাড়া রয়েছেন দুই নিরাপত্তা আধিকারিক দেবাশীষ মুখোপাধ্যায় ও রিংকু বেহেরা। সুভাষ মুখোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা হয় গত শুক্রবার রাতে। শনিবার থেকে তিনি তিনদিনের সিবিআই হেফাজত ছিলেন। বাকি সাতজন গত বৃহস্পতিবার থেকে পাঁচ দিনের জন্য সিবিআই হেফাজতে ছিলেন। এদিন সকালে কলকাতার নিজাম প্যালেস থেকে আটজনকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর ঘেরাটোপে আসানসোলের সিবিআই বিশেষ আদালতে নিয়ে আসা হয়।

সিবিআইয়ের আইনজীবী এদিন আদালতে সওয়াল করে বলেন, ইসিএলের এই আধিকারিকরা কয়লা পাচার মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালার সঙ্গে সরাসরি যোগ ছিলো। তাদের মধ্যে মোটা অংকের টাকাও লেনদেন হয়েছে। তিনি আরো বলেন, লালার বাড়িতে তল্লাশি পাওয়া ডায়েরিতে চিরকুটের মতো এমন কিছু পাওয়া গেছে, , যার মাধ্যমে সেই টাকা নেওয়া হয়েছে লালার এজেন্ট মারফত। সেই চিরকুটে বিশেষ কিছু সাংকেতিক চিহ্ন ব্যবহার করা হয়েছে। সেইসব চিরকুটের এইসব চিহ্নের রহস্য ( কোড/ ডিকোড) বার করা হয়েছে। আরো বার করার চেষ্টা করা হচ্ছে । এদের জামিন দেওয়া হলে তারা পালিয়ে যেতে পারে বা সাক্ষ্যকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করবেন।
যদিও গ্রেফতার হওয়া আটজনের আইনজীবীরা সিবিআইয়ের এই দাবি, মানতে চাননি। তারা এজলাসে পাল্টা জবাব দিয়েছেন।

TAGS

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর