ভিডিও

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

বাংলা নিজের মেয়েকেই পেল

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

আসানসোল,সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত :মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে অভূতপূর্ব সংখ্যাগরিষ্ঠতায় জয়ী হলেও তিনি নিজেই এই নির্বাচনে পরাজিত হলেন। নন্দীগ্রাম আসন থেকে বিজেপির প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী তাঁকে ১৬২২ ভোটে পরাজিত করেন। তবে এর আগে খবর পাওয়া গিয়েছিল যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১২০০ ভোটে জয়ী হয়েছিলেন, কিন্তু সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয় যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রাম থেকে নির্বাচন পরাজিত হন।
যদিও সার্বিক দিক থেকে সারা রাজ্যের তৃণমূলের জয় দেখে তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় “বাংলা নিজের মেয়েকেই পেল”।

ভারতীয় জনতা পার্টি দাবি করে যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৬২২ ভোটে নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন। সন্ধ্যা ৬ টার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, “এত বড় জয়ের মুখে আমি নন্দীগ্রামের পরাজয় আনন্দের সাথে গ্রহণ করেছি।” তবে এর পেছনে ষড়যন্ত্রের অভিযোগও করেন তিনি। তিনি আরও বলেছিলেন, “আমি খবর পেয়েছি যে এর পিছনে কিছু ষড়যন্ত্র এবং দুর্নীতি হয়েছে। আমি এর বিরুদ্ধে আদালতে যাব এবং সত্য প্রকাশ করব। ”

প্রায়শই এমন ঘটনা ঘটেছে যে যখনই পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনে কোনো মুখ্যমন্ত্রী হেরে যান, সেই দলও ক্ষমতাচ্যুত হয়, তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ট্রেন্ড ভাঙলেন। যদিও তিনি নন্দীগ্রাম থেকে নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন, তার দল সর্বাধিক ২১৩ টি আসনে জয়ের দিকে এগিয়ে চলছে। ২০১৬ সালে, তৃণমূল কংগ্রেস ২১১ টি আসন জিততে সক্ষম হয়েছিল।

এদিকে বিজেপি জানিয়েছে যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আর মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার নৈতিক অধিকার নেই।দলের আইটি সেলের প্রধান ও উত্তরবঙ্গের ইনচার্জ অমিত মালভিয়া বলেন, নন্দীগ্রামের কাছে এই আসনটিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরাজিত হয়েছেন। শুভেন্দু অধিকারী তাঁকে ১৬২২ ভোটে পরাজিত করেন।
এখন তিনি কোন নৈতিক ভিত্তিতে তার মুখ্যমন্ত্রী পদকে ন্যায্যতা দেবেন?

মোটের ওপর দেখতে গেলে
” বাংলা নিজের মেয়েকে চায়” স্লোগানের যথার্থতা প্রকাশ পেল নির্বাচনের ফলাফলের মাধ্যমে

TAGS

সম্পর্কিত খবর

সর্বশেষ খবর